সম্পাদকীয়

এপ্রিল ৭, ২০১৫, ৮:৪৭ অপরাহ্ন

সিটি নির্বাচন কি ইতিবাচক রাজনীতির সহায়ক হবে ?

নিউজপেজ ডেস্ক

হঠাৎ রাজনীতির দৃশ্যপটে কিছু মৌলিক পরিবর্তন দেশবাসীকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিয়েছে। তিন মাসেরও বেশি সময় গুলশান কার্যালয়ে অবরুদ্ধ কিংবা স্বেচ্ছায় অবস্থান নেয়ার পর বেগম খালেদা জিয়ার আদালতে হাজির হওয়া এরপর তার নিজ বাসায় ফিরে যাওয়া এবং এ কাজে সরকারের সহযোগিতা করার মত বিষয়গুলো স্বাভাবিকভাবেই সমঝোতার আভাস দেয়। একই সাথে টানা অবরোধের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রামকে হরতাল-অবরোধ মুক্ত রেখে তিন সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহনে বিএনপির সিদ্ধান্ত রাজনীতিতে ইতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টি করছে। তবে এই পটভূমিতে জয়-পরাজয় নিরুপন না করে সিটি নির্বাচকে সুষ্ঠু ও অংশগ্রহনমূলক করার মাধ্যমে ইতিবাচক পরিবেশকে টেকসই করার দায়িত্ব সরকারের অনেক বেশী।

রাজনৈতিক দল বা প্রতিযোগিতামূলক রাজনীতি ব্যতীত উন্নয়ন ও আধুনিক রাষ্ট্র গঠনের কথা চিন্তাও করা যায় না। আর রাজনৈতিক দল বলতে অন্তত শক্তিশালী দ্বি-দলীয় ব্যবস্থাকেই বোঝায়। একদলীয় ব্যবস্থায় সেই দলও নিরাপদ নয়, দেশও নিরাপদ নয়, নিরাপদ নয় গণতন্ত্র-উন্নয়ন ও মানুষের সার্বিক মুক্তি। এ কারণেই বলা হয়, আধুনিক গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা বহুদলীয় রাজনীতির ওপরই নির্ভর করে। আর সব দলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন তার অনিবার্য শর্ত। যদিও আইন অনুযায়ী সিটি নির্বাচন নির্দলীয়। কিন্তু ঐতিহ্যগতভাবেই স্থানীয় নির্বাচনগুলো দেশে দলীয় আবরণেই হয়ে আসছে।


যাহোক সবকিছু ছাপিয়ে অবাধ সিটি নির্বাচন বিবদমান রাজনৈতিক পক্ষগুলোর মধ্যে সহিষ্ণুতা ফিরে আসুক। দ্রুত শুরু হোক সংলাপ আর সমঝোতা। দেশে আসুক রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, কেটে যাক অনিশ্চয়তা।

নিউজপেজ২৪/একস