লাইফ স্টাইল

নভেম্বর ৫, ২০১৫, ৮:০৮ অপরাহ্ন

বৈচিত্র্যময় ক্যারিয়ারের জন্য আইপিই

নিউজপেজ ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন পাবলিক-প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকটি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাবে, তাদের মনে একটি কমন প্রশ্ন- পড়ব কোন বিষয় নিয়ে? বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকেই প্রকৌশল শাখাকে প্রাধান্য দেয়। তবে তাদের সামনে রয়েছে থাকে অনেক ধরনের প্রকৌশল শাখা।

আইপিই কি

ইন্ডাস্ট্রিয়াল এ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বা শিল্প ও উৎপাদন প্রকৌশল এমন একটি প্রকৌশল শাখা, যা পণ্য সেবা ও কাজের মানোন্নয়ন, পণ্য উৎপাদন, উৎপাদন খরচ কমানো, পরিকল্পনা প্রণয়ন, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, যন্ত্রপাতি ও সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিতকরণ নিয়ে কাজ করে।

কেন আইপিই অন্য শাখা থেকে আলাদা

এখানে প্রকৌশল ও প্রযুক্তিগত প্রাথমিক বিষয়ের পাশাপাশি যন্ত্রকৌশল ও বিবিএ’র অনেক বিষয়, ভৌতবিজ্ঞানের মূল বিষয়, সাধারণ হিসাববিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, উপস্থাপনার কৌশল, সৃজনশীলতা ও কর্মক্ষেত্র ব্যবস্থাপনা নিয়ে শেখানো হয়। এতে করে একজন শিল্প প্রকৌশলী কর্মক্ষেত্রের ব্যবহারিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে বাস্তব পরিস্থিতিতে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে। এককথায় আইপিই হল ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যানেজমেন্টের সমন্বয়। অনেকে বলে থাকেন শিল্পও উৎপাদন প্রকৌশল যতটা না প্রকৌশল তার চেয়ে বেশি ব্যবস্থাপনা। কথাটা অনেকাংশে সত্যি কারণ শিল্পও উৎপাদন প্রকৌশলীকে প্রযুক্তির পাশাপাশি ব্যবসার পরিকল্পনা, ভোক্তার চাহিদা ও সন্তুষ্টি, বিপণন প্রক্রিয়া বিবেচনায় নিতে হয় আর একাডেমিক কারিকুলামও সেভাবে সাজানো। অন্যদিকে একটি পণ্য উৎপাদন প্রক্রিয়ার উন্নতির কোনো সীমা নেই। সময় ও টেকনোলজি পরিবর্তনের সাথে সাথে উৎপাদন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন করতে হয় কারণ প্রতিটি ইন্ডাস্ট্রির চেষ্টা থাকে পরিবর্তিত পণ্য সবার আগে বাজারজাত করা। এই উদ্যোগ থেকেই ইন্ডাস্ট্রিতে ইনোভেশন হয় যার নেতৃত্বে থাকে শিল্প প্রকৌশলী।

ম্যাজিক শব্দ

আইপিইতে আলোচিত কয়েকটি ম্যাজিক শব্দ হল ইনোভেশন, প্রোডাক্টিভিটি বা উৎপাদনশীলতা, অপ্টিমাইজেশান বা সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার এবং লীন ম্যানুফ্যাকচারিং।

উৎপাদনশীলতা ও ইনোভেশন আইডিয়া এখন সরকারি কাজে

যেকোন দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই। বাংলাদেশেও ২০১১ সাল থেকে প্রতি বছর ২ অক্টোবর শিল্প, কৃষি ও সেবাসহ বিভিন্ন খাতে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস পালিত হয়ে আসছে। অন্যদিকে বাংলদেশ সরকার নাগরিক সেবার পদ্ধতিকে সহজীকরণ ও জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রতিটি বিভাগ, জেলা এবং উপজেলাতে পাবলিক সার্ভিস ইনোভেশন ইউনিট গঠন করেছে।

যে সব বিষয় পড়ানো হয়

ইঞ্জিনিয়ারিং ইকোনমি, ইঞ্জিনিয়ারিং স্ট্যাটিস্টিক্স, ইঞ্জিনিয়ারিং মেকানিক্স, অপারেশন্স রিচার্স, অপারেশন্স ম্যানেজমেন্ট, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট, প্রোডাক্ট ডিজাইন এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট, টোটাল কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট, অর্গানাইজেশনাল বিহেভিয়ার, ম্যানুফ্যাকচারিং প্রসেস, হিউম্যান ফ্যাক্টর ইঙ্গিনিয়ারিং, ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিম্যুলেশন, ফ্লুইড মেকানিকস, মেশিন টুলস, মেশিন ডিজাইন, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ইত্যাদি।

চাকরির সুযোগ

রয়েছে দেশে-বিদেশে প্রচুর চাকরি। বাংলাদেশে পরিচালিত প্রায় প্রতিটি বহুজাতিক কোম্পানিতে এবং অনেক দেশীয় কোম্পানিতে শিল্প প্রকৌশলীরা চাকরি করছেন। উল্লেখযোগ্য কোম্পানিগুলো হল— সিঙ্গার, শেভরন, স্কয়ার, পিএইচপি, রহিম আফরোজ, বাটা, প্রাণ-আরএফএল, ওয়ালটন, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, ইউনিলিভার, নাভানা, টেলিকম প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক, টেলিকম প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াই, বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় খাদ্যপণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান নেসলে এবং বিভিন্ন সিমেন্ট ফ্যাক্টরি। এ ছাড়া ও তৈরি পোশাকশিল্পে রয়েছে অবারিত সুযোগ। সবশেষে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের যোগ্যতাতো থাকছেই।

কোথায় পড়বেন

বাংলাদেশে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বিষয়ে ৪ বছর মেয়াদি বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি প্রদান করে এ রকম বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল— বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে—আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

যোগ্যতা কেমন

আইপিই বিষয়ে চার বছর মেয়াদি বিএসসি ইঙ্গিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তি হতে হলে একজন শিক্ষার্থীর অবশ্যই বিজ্ঞান বিষয়ে পড়াশোনা থাকতে হবে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে যারা এসএসসি ও এইচএসসি পাস করেছে তারা এই বিভাগে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে ভর্তির যোগ্যতা ও অন্যান্য নিয়ম ভিন্ন। যেমন— শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করার জন্য এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান ও গনিতে কমপক্ষে জিপিএ ৩.৫সহ এইচএসসি/সমমান ও এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩.০সহ মোট ৭.০ থাকতে হবে। তাই যার যে বিশ্ববিদ্যালয় পছন্দ সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিস্তারিত তথ্যাবলী জেনে নিতে হবে।

নিউজ পেজ২৪/আরএস