তথ্যপ্রযুক্তি

জানুয়ারী ১৪, ২০১৬, ৫:৪৬ অপরাহ্ন

২০১৬ হতে পারে ড্রোন সাংবাদিকতার বছর

নিউজপেজ ডেস্ক

প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে শিক্ষক ম্যাট ওয়েট নাইট ফাউন্ডেশনের কাছ থেকে ৫০ হাজার ডলার পুরষ্কার পেয়েছিলেন তার ড্রোন পোগ্রামের জন্য। ওয়েটের ‘ড্রোন জার্নালিজম ল্যাব’ সবার আগে সংবাদ মাধ্যমে ড্রোন ব্যবহারের প্রয়োজনীয় দিকটি তুলে ধরেন।

ল্যাব প্রতিষ্ঠার মাসখানেকের মধ্যেই ওয়েট এবং তার ছাত্ররা বেশ কয়েকটি ড্রোন আকাশে উড়ানব। সবকিছু পরিকল্পনা মতই চলছিল। তারপর আমেরিকার ফেডারেল অ্যাভিয়েসন দপ্তর থেকে একটি চিঠি দিয়ে তার ড্রোন বানানোতে হস্তক্ষেপ করা হয়। বন্ধ হয়ে যায় বাকি সব প্রকল্প।

ওয়েট বলেন, ‘যখন আপনি একটা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত, তখন আঙ্গুল তুলে সরকারকে এটা বলা যাবে না, আপনার কথা মতো চলব না।’

ফেডারেল অ্যাভিয়েসন থেকে নোটিশ পাওয়ার পর থেকে যদিও ড্রোন প্রজেক্ট বন্ধ। তারপরও ওয়েট এবং তার অনুসারীরা আশাবাদী, কারণ ২০১৬ মাঝামাঝি সময়ে ফেডারেল অ্যাভিয়েসনের পক্ষ থেকে একটা নীতিমালা প্রকাশ হওয়ার কথা রয়েছে।

বাজফিড ওপেন ল্যাব ফর জার্নালিজম, ট্যাকনোলজি এন্ড আর্টসের একজন কর্মকর্তা ব্যান ক্রেমিয়ার বলেন, ‘কৃষি, মিডিয়া, পরীক্ষাসহ নানা কাজে এই ড্রোন ব্যবহার করা যায়। যার কারণে সাংবাদিকতার বেলায় আমার মতে এর সম্ভাবনা প্রচুর।’

ওয়েটের মতে, ড্রোন ব্যবহার সাংবাদিকতাকে নতুনমাত্রা যোগ করতে সহায়তা করবে। বিশেষ করে প্রাকৃতিক দূর্যোগের ঘটনা কাভার করার ক্ষেত্রে। এই চিত্রের সাহায্যে তাৎক্ষণিক দূর্যোগের ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা সম্ভব হবে।

ক্রেমিয়ার ও ওয়েট দুজনেই বেশ আশাবাদী ২০১৬ সালের মধ্যেই তাদের এই নীতিমালা চূড়ান্ত হয়ে যাবে। যদিও ফেডারেল অ্যাভিয়েসন ইতিমধ্যেই তাদের প্রথম সময়সীমা বাড়িয়েছে।

এক ইমেইলে ফেডারেল অ্যাভিয়েসনের মুখপাত্র এলিসন ডুকুটে বলেছেন, ‘এই বছরের শেষের দিকেই আমরা নীতিমালা চূড়ান্ত করব।

বর্তমান নীতিমালার কারণে স্বল্প পরিমানে ‘সাংবাদিক ড্রোন’ আমেরিকার আকাশে দেখা যায়। ফেডারেল অ্যাভিয়েসন ৩ হাজারেরও বেশি ড্রোন উড়ানোর অনুমোদন দিয়েছে।

তবে তাদের পরিচালনাকারীকে পাইলট লাইসেন্স অধিকারী হতে হবে। এই সব ছাড় পেয়েছে সিএনএনের মতো বড় বড় সংবাদ মাধ্যমগুলো।’

ওয়েটের মতে এই ধরণের শর্ত খুবই ব্যয়বহুল এবং সময় নষ্ট করবে। ছোটদের পক্ষে এটা পরিচালনা করা সম্ভব হবে না। ককপিট ট্রেইনিং করলেই একজন দক্ষ ড্রোন পরিচালনাকারী হতে পারেনা বলেও মত দেন তিনি।

তবে ফেডারেল অ্যাভিয়েসন বলছে, যারা ড্রোন পরিচালনা করবে তাদের যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাভিয়েসন নীতিমালা সম্পর্কে ন্যূনতম ধারণা থাকা প্রয়োজন। কারণ গুরুত্ব সহকারে বাণিজ্যিক বিমানের নিরাপত্তার বিষয়টিও মাথায় রাখা প্রয়োজন। ক্যলিফোর্নিয়ার স্থানীয় সরকার ইতোমধ্যেই একটি আইন পাশ করেছে, যা পাপারাজ্জিদের ছবির মাত্রা কিছুটা কমাবে।

এর নেতিবাচক দিকটি তুলে ধরে ওয়েট বলেন, ‘এটাই একমাত্র মাধ্যম যা মানুষের ব্যক্তিগত বিষয়গুলোকে নাজুক করে তুলে।’ ওয়েট আশাবাদী তার ছাত্র এবং ফেডারেল অ্যাভিয়েসনের মধ্যকার সমস্যার আশু সমাধানে।

নিউজ পেজ২৪/আরএস