তথ্যপ্রযুক্তি

ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৬, ১:৪৫ অপরাহ্ন

স্বজনদের মাধ্যমে সিম নিবন্ধন করতে পারবেন প্রবাসীরা : তারানা হালিম

নিজস্ব প্রতিনিধি

বাবা-মা বা স্বজনদের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করতে পারবেন প্রবাসীরা। তবে এক্ষেত্রে দেশে ফেরার পর তাদের নিজের নামে সিমটি নিবন্ধন করে নিতে হবে।

রোববার (৩১ জানুয়ারি) রাতে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে আঙ্গুলের ছাপ বা বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম/রিমকার্ড নিবন্ধনে গ্রাহকদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে সাতটি প্রশ্ন ও উত্তর লিখে পোস্ট করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। এ পোস্টেই তিনি এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তারানা হালিম লিখেছেন, যাদের দুই হাত নেই বা আঙ্গুলের ছাপ মিলছে না, তাদের সমস্যা সমাধানে বিশেষ পদ্ধতি চালু করা হবে। আর যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নেই, তারা পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে সিম/রিম নিবন্ধন করতে পারবেন। তবে এ সিমের মেয়াদ থাকবে ছয়মাস। ছয় মাসের মধ্যে এনআইডি দিয়ে নিবন্ধন করে নিতে হবে।

১৮ বছরের কম বয়সীদের জন্য সিম নিবন্ধনের ব্যাপারে প্রতিমন্ত্রী লেখেন, বাবা-মা কিংবা অভিভাবক তাদের পক্ষে সিমটি কিনতে বা নিবন্ধন করতে পারবেন। পরে এনআইডি পেলে নিবন্ধন করে নিতে হবে।

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনে ফি লাগে কি না- প্রশ্নে প্রতিমন্ত্রী লিখেছেন, এই পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন সম্পূর্ণ ফ্রি। যেকোনো ধরনের সিম যেকোনো অপারেটর ও রিটেইলার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে নিবন্ধন করে দিতে বাধ্য। কেউ টাকা নিলে আমাকে অবহিত করবেন। আমি যথাযথ ব্যবস্থা নেব।

পুরানো সিম নিবন্ধনে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। পাশাপাশি নতুন সিমের নিবন্ধনও চলতে থাকবে। অস্থায়ী এনআইডি দিয়েও সিম/রিম নিবন্ধন করা যাবে। তবে ছয়মাসের মধ্যে সিমটি আসল এনআইডি দিয়ে নিবন্ধন করে নিতে হবে, জানান তারানা হালিম।

প্রশ্ন-উত্তর লেখার ব্যাখা দিয়ে প্রতিমন্ত্রী পোস্টের শুরুতে লিখেছেন, আপনারা অনেকেই আমার ফেসবুক পেজে অনেক প্রশ্নের উত্তর জানতে চেয়েছেন। ব্যস্ততার কারণে হয়তো আমি সবার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারি না। আপনাদের সকলের জ্ঞাতার্থে আমি বেশ কিছু প্রশ্ন বাছাই করেছি এবং সেসব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করলাম।

ফেসবুকে প্রশ্ন নিয়ে গ্রাহকদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এর আগেই আশ্বাস দিয়েছিলেন প্রতিমন্ত্রী। সিম নিবন্ধনে সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তারানা হালিম যেকোনো ধরনের অনুসন্ধান থাকলে পোস্টে কমেন্ট করারও আহ্বান জানান।