ফেব্রুয়ারী ৯, ২০১৬, ৮:১১ অপরাহ্ন

পরিবেশবান্ধব বাঁশের সাইকেল!

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাঁশের কত না ব্যবহার! জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত নানা কাজে দরকার পড়ে বাঁশ। গ্রামঞ্চলে বাঁশ দিয়ে বাড়ি, ঘরের বেড়া, ঝুঁড়ি কতো কিছুই না তৈরি হয়। তবে অাধুনিক ছোঁয়া লাগার সাথে সাথেই বাঁশের ব্যবহার কমে গেছে। কিন্তু এই বাঁশ নিয়ে অফ্রিকায় রীতিমতো হৈচৈ শুরু হয়েছে। তৈরি হচ্ছে বাঁশের তৈরি পরিবেশবান্ধব সাইকেল।

এই সাইকেল অ্যালুমিনিয়াম, স্টিলের থেকেও নাকি বেশি মজবুত। স্টাইলিশ বাঁশের এ বাইসাইকেলের বিক্রিও অনেক। জানা গেছে ধাতুর তৈরি সাইকেলের তুলনায় বাঁশে সাইকেলের বিক্রি দেড়গুণ বেশি।

বুমারস ইন্টারন্যাশানাল সাইকেল নির্মাতা ঘানার প্রত্যন্ত গ্রামে গরিব মানুষদের ট্রেনিং দিচ্ছে বাঁশের বাইসাইকেল বানানোর। তারা দাবি করছে, ধাতুর সাইকেলের থেকেও অনেক বেশি শক্তিশালী, স্টাইলিশ এই সাইকেল। পরিবেশবান্ধব তো বটেই।

বুমারস ইন্টারন্যাশানালের সিইও কোবেনা দানসো জানান, ''বাঁশের সাইকেল উত্‍পাদনে অনেক যুবক রোজগারের সন্ধান পেয়েছে। ঘানা ছাড়িয়ে বিভিন্ন দেশে এই সাইকেল রপ্তানিও করা হচ্ছে।''

বাঁশ দিয়ে সাইকেল বানানো নতুন কোনও উদ্ভাবনী নয়। প্রায় দেড়শো বছর আগেও বাঁশের সাইকেলের ব্যবহার ছিলো। ১৮৯৪-এ ইংল্যান্ডের বাম্বু সাইকেল কোম্পানি তৈরি করে বাম্বু বাইক। পাশাপাশি ওই সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও জনপ্রিয় হয়ে ওঠে বাঁশের সাইকেল। কিন্তু কল-কারখানার যত উন্নতি হয়েছে এরসঙ্গে উধাও হয়ে গেছে হাতে তৈরি বাঁশের বাইসাইকেলের মতো অনেক ক্ষুদ্র শিল্প। কিন্তু ফের এই শিল্পকে তুলে ধরতে বেশ কিছু কোম্পানি এগিয়ে এসেছে।

প্যাডেল ফরওয়ার্ড সাইকেল প্রস্তুকারক বিশ্বের কাছে বাঁশের সাইকেলকে তুলে ধরার জন্য অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে। তাদের ওয়েবসাইট থেকে মাত্র ৫০০ ডলারে পেয়ে যাবেন দারুন স্টাইলিশ বাঁশের বাইসাইকেল।