ফেব্রুয়ারী ১৪, ২০১৬, ২:১৭ অপরাহ্ন

ইতিহাসের এই দিনে

নিজস্ব প্রতিবেদক

আজ রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। ২ ফাল্গুন ১৪২২। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭ এই দিনের কিছু উল্লেখযোগ্য ঘটনা নিচে তুলে ধরা হলো।

১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেইনটাইন ডে। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। প্রেম-ভালোবাসা চিরন্তন শাশ্বত। সেই আদিম গুহাবাসী থেকে শুরু করে আজকের আধুনিক তরুণতরুণী হৃদয়ে উচ্ছাস আবেগে অতি সহজেই ফুটে ওঠে ভালোবাসার লাল গোলাপ । যুগের পরিবর্তনে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশের ক্ষেত্রেও দেখা দিয়েছে পরিবর্তন। ভ্যালেইনটাইন ডে এনে দিয়েছে সেই পরিবর্তন-পরিবর্ধন । প্রিয়জনকে কাছে পাবার কিংবা মনের কথা বলার একটি বিশেষ দিন-তারিখ পর্যন্ত নির্দিষ্ট হয়ে গেছে। সেটি ১৪ ফেব্রুয়ারি।
১৪ ফেব্রুয়ারি কিভাবে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস হিসেবে নির্ধারিত হলো এ নিয়ে ভিন্ন কিছু কাহিনী প্রচলিত আছে। সবচেয়ে বেশি যে কাহিনীটিকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে সেটি হলো তৃতীয় শতাব্দীতে ক্লডিয়াস নামে এক অদ্ভুত মানসিকতার সম্রাট শাসন করতেন রোম সাম্রাজ্য। তিনি একটি অদ্ভুত বিশাল সেনাবাহিনী গড়তে চাইলেন বিনা ছুটিতে সেনাবাহিনীতে নাম লেখাতে রাজি নয়। ক্ষিপ্ত হয়ে গেলেন রাজা ক্লডিয়াস। প্রেম-ভালোবাসা, পরিবার-পরিজন না থাকলে মানুষ সেনাবাহিনীতে আসতে বাধ্য হবে এ রণা থেকে তিনি তার রজ্যে প্রেম-ভালোবাসা, বিয়ে নিষিদ্ধ করে দিলেন।

সারা রাজ্যের প্রেমিক-প্রেমিকারা এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গেলো। তাদের পাশে এসে দাড়ালেন সেন্ট ভ্যালেইনটাইন নামের এক ধর্মযাজক। সম্রাটের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তিনি আরো বেশি করে প্রেম বিয়ের ঘটকালি শুরুকরলেন। একদিন ধরা পড়ে গেলেন ভ্যালেইনটাইন। কারাগারে নিক্ষেপ করা হলো তাকে। প্রতিদিন অসংখ্য তরুণ-তরুণী, প্রেমিক জুটি কারাগারে এসে ভিড় জমায়। ভ্যালেইনটাইনের জন্য উপহার নিয়ে আসে। তার মুক্তির আন্দোলন করে।

এরই মধ্যে এক কারারক্ষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা র অন্ধ মেয়েটি প্রায়ই সাক্ষাত করে ভ্যালেইনটাইনের সঙ্গে । গান গল্প করে। ১৪ ফেব্রুয়ারি তারিখে ভ্যালেইনটাইন রহস্যজনকভাবে করা অভ্যন্তরে মারা যান। মৃত্যুর আগে তিনি অন্ধ মেয়েটিকে একটি চিরকুট লিখে যান। তাতে লেখা ছিলো লাভ ফ্রম ইউর ভ্যালেইনটাইন।
ভ্যালেইনটাইনের ভালোবাসার সেই অমর কাহিনীকে স্মরণ করে পোপ জুলিয়াস ৪৯৬ খ্রিস্টাব্দের ১৪ ফেব্রুয়ারি চালু করেন ভালোবাসা দিবস পালনের রেওয়াজ । সেই থেকে দেশে দেশে বিভিন্ন রকমফের উদযাপিত হচ্ছে ভ্যালেইনটাইন ডে, ভালোবাসা দিবস।

(আসফউদদৌলা রেজার মৃত্যু)
নির্ভীক, নিষ্ঠাবান সাংবাদিক-সাহিত্যিক আসফউদদৌলা রেজার মৃত্যুবার্ষিকী আজ। একজন বিশিষ্ট বেতার ব্যক্তিত্বও ছিলেন তিনি। ১৯৮৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ইহলোক ত্যাগ করেন আসফউদদৌলা । ১৯২৬ সালে শেরপুরের গ্রামে এক সন্ত্রান্ত জমিদার পরিবারে তার জন্ম। শৈশবে তিনি প্রতিপালিত হয়েছেন নানা সাহিত্যিক সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজীর কাছে। ১৯৪৩ সালে চান্দাইকোনা হাইস্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাস করে ভর্তি হন কলকাতা ইসলামিয়া কলেজে। সেখান থেকে ১৯৪৫-এ ইন্টামিডিয়েট এবং ৪৭-এ বিএ পাশ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসে এমএ ক্লাসে ভর্তি হয়েও জমিদারী দেখাশোনার কারণে লেখাপড়াচালাতেপারেননি। ৫১ তে দৈনিক আজাদ পত্রিকায় সহ-সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। কিছুদিন পর যান দৈনিক সংবাদে। ৫৪ তে দৈনিক ইত্তেফাকে যোগ দেন সহকারী বার্তা সম্পাদকের পদে। ১৯৭০ সালে নিযুক্ত হন ইত্তেফাকের বার্তা সম্পাদক। তার লেখা উপন্যাসের মধ্যে অভিযোগ অনুবাদ গ্রন্থের মধ্যে প্রথম বিশ^যুদ্ধ, সোভিয়েত মতবাদ, রাজনীতি ও সরকার নিরস্ত্র সংগ্রাম উল্লেখযোগ্য।
১৯৩৭ সালের এ দিনে ফিলিস্তিনের শাশা গ্রামে সশস্ত্র ইহুদিবাদী গোষ্ঠি পালমাখ নির্মম গণহত্যা চালিয়েছিলো। দুই দিনের এই হতাকান্ডে শাশা গ্রামের ৬০ নিরীহ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছিলেন। নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই ছিলো নারী এবং শিশু। এ ছাড়া তাদের এই নির্মম হামলায় অন্তত ২০টি বাড়ি ধ্বংস হয়েছিলো। শাশা গ্রামে যে ভাবে হত্যাকান্ড চালানো হয়েছিলো ইহুদিবাদীরা দীর্ঘদিন ফিলিস্তিনে হত্যাকান্ড চালানোর জন্য একই পদ্ধতি অনুসরণ করেছিলো।

২০০৩ সালের এ দিনে প্রথম ক্লোনিং করা ভেড়া ডলিকে মেরে ফেলা হয়। জরা জনিত নানা রোগ আক্রমণ করায় বিজ্ঞানীরা ডলিকে মেরে ফেলতে বাধ্য হন। ১৯৯৬ সালের ৫ই জুলাই স্কটল্যান্ডের রোজালিন ইনস্টিটিউটে ডলির জন্ম হয়েছিলো। ডলির আগে ক্লোনিং এর মাধ্যমে আর কোনো স্তন্যপায়ী জন্মগ্রহণ করেনি। তবে এই খবরটি তখন চেপে রাখা হয়েছিলো এবং ২৩শে ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭ সালে তা প্রকাশ করা হয়।

২০০৫ সালের এ দিনে লেবাননের রাজধানী বৈরুতে এক বোমা হামলায় দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী রফিক হারিরি নিহত হন। নিহত হওয়ার সময় ধনাঢ্য ব্যবসায়ী হারিরির বয়স ছিলো ৭১ বছর। লেবাননের গৃহযুদ্ধ অবসানের পর ১৯৯২ সালে রফিক হারিরি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০০০ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত লেবাননের প্রধানমন্ত্রীর ছিলেন। রফিক হারিরি লেবাননে সিরিয়ার সৈন্যদের উপস্থিতির বিরোধী ছিলেন।

আর এ কারণে তিনি নিহত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স দাবি করে যে হারিরির হত্যাকান্ডের সাথে সিরিয়া জড়িত ছিলো। এ সব দেশের চাপে হারিরির হত্যা তদন্তের জন্য জাতিসংঘের কমিটি গঠন করতে বাধ্য করা হয়। এ ভাবে হারিরির হত্যাকান্ডকে লেবানন এবং সিরিয়ার উপর চাপ সৃষ্টির অজুহাত হিসেব ব্যবহার করা হয়েছে।

১৯২৯ সালের এ দিনে তরুণ ব্যাকটেরিয়াবিদ স্যার আলেকজান্ডার ফ্লেমিং দৈবক্রমে আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কারটি করেন। তার গবেষণাকারের এক সহকারী ব্যাকটেরিয়াপূর্ণ পাত্রের মুখ ঢেকে রাখার কথা ভুলে যান। পরে ফ্লেমিং দেখতে পান পাউরুটিতে জন্মায় একজাতের ছত্রাক ওই পাত্রে উড়ে এসে পরার ফলে পাত্রটির বেশির ভাগ ব্যাকটেরিয়া মরে গেছে। আর এভাবেই তিনি ব্যাকটেরিয়া নিমূর্লকারী যুগান্তকারী এন্টিবায়োটিক পেনিসিলিন আবিষ্কার করেন।

আলেকজান্ডর ফ্লেমিংএর জন্ম হয়েছিলো ১৮৮১ সালের ৬ই আগস্ট। আলেকজান্ডার ফ্লেমিং এর মাত্র সাত বছর বয়সে তার বাবা পরলোকগমন করেন। বড় ভাইয়ের অনুপ্রেরণায় তিনি লন্ডনের সেন্ট মেরি মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। ১৯৫৫ সালের ১১ই মার্চ খ্যাতনামা এই আবিষ্কারক পরলোকগমন করেন।

১৯৪৫ সালের এ দিনে দ্বিতীয় মহাযু্দ্ধর সময় জার্মানীর বিরুদ্ধে সবচেয়ে মারাত্মক বোমা হামলা শুরু করা হয়েছিলো। এই বোমা হামলায় ইঙ্গ-মার্কিন ১৭৭৩টি বোমারু বিমান অংশ নিয়েছিলো। তিন দিনের বিরামহীন এ বোমা হামলায় জার্মানির বহু শিল্প শহরকে ধুলোর সাথে মিশিয়ে দেয়া হয়। এ বিমান হামলায় দেড় থেকে আড়াই লক্ষ জার্মান বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছিলো।

১৭৭৯ সালের এ দিনে ইংরেজ নৌ অভিযাত্রী ক্যাপ্টেন কুক হাওয়াই দ্বীপের আদিবাসীদের হাতে নিহত হন। তিনি সে সময় তৃতীয়বারের মতো হাওয়াই দ্বীপে অভিযান পরিচালনা করছিলেন। কুক এবং তার সহযাত্রীদেরকে প্রথমে হাওয়াইয়ের আদিবাসীরা আন্তরিকতার সাথে স্বাগত জানিয়েছিলো। কুকের লোকজন এ সুযোগে হাওয়াইবাসীদের কাছে পেরেক এবং ধাতব পদার্থ বিক্রি করে। তারা অবশ্য এ সব পণ্যের বিনিময় যৌন সুবিধাও আদায় করে নিয়েছিলো।

১৭৬৬ সালের এ দিনে বৃটিশ অর্থনীতিবিদ টমাস রবার্ট ম্যালথাস জন্মগ্রহণ করেন। ম্যালথাস জনসংখ্যা সংক্রান্ত যে থিউরি প্রদান করেছেন তাকে অনেকেই অর্থনীতির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচনা করেন। তার এই তত্ত্ব মোতাবেক খাদ্য উৎপাদনের চেয়ে জনসংখ্যার বৃদ্ধি বেশি হয়। যখনই খাদ্য উৎপাদান তুলনামূলক ভাবে বৃদ্ধি পায় তখনই জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার আগের চেয়ে বেশি হয়। তবে খাদ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি পাওয়ার থেকে যদি জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার খুব বেশি হয় তবে দুর্ভিক্ষ, য্দ্ধু বিগ্রহ এবং মহামারী দেখা দেয় এবং জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার নিয়ন্ত্রণ করে। তবে সকল অর্থনীতিবিদ ম্যালথাসের এই মতবাদ গ্রহণ করেন নি।
পর্তুগিজদের হাত থেকে পালিয়ে বাহাদুর শহর পানিতে বাপ দিয়ে মৃত্যুবরণ (১৫৩৭)
ঘেন্টে প্রবেশ করে রোম সম্রাট পঞ্চম চার্লসের বিদ্রোহী নেতাদেরকে একে একে হত্যা (১৫৪০)
কানাডা ফ্রান্সের রাজকীয় প্রদেশ হিসেবে পরিগণিত (১৬৬৩)
কলকাতায় অবিভক্ত ভারতের প্রথম হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ স্থাপিত (১৮৮১)
যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে হাওয়াই একীভূত (১৮৯৩)
ইউয়নে শি-কাই চীনা প্রজাতন্ত্রের প্রথম রাষ্ট্রপতি (১৯১২)
ইলিনয়ের শিকাগোতে অল ক্যাপন দলের প্রতিদ্বন্দী ৭ জনকে হত্যা করা হয়। যা ভালোবাসা দিবসের হত্যাকা- হিসেবে পরিচিত (১৯২৯)
বাংলাদেশকে ফ্রান্সের স্বীকৃতি (১৯৭২)
বাংলা একাডেমীতে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় সাহিত্য সম্মেলন শুরু (১৯৭৪)
ভারতের ব্যাঙ্গালোরে বিমান দুর্ঘটনায় ৯০ যাত্রী নিহত (১৯৯০)
সিলেট শাহজালাল বিশ^বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্লাস শুরু (১৯৯১)

নিউজ পেজ২৪/ইএইচএম