ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০১৬, ৫:২৭ অপরাহ্ন

ইতিহাসের এই দিনে

নিজস্ব প্রতিনিধি

অাজ শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। ১৫ ফাল্গুন ১৪২২। ১৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭এই দিনের কিছু উল্লেখযোগ্য ঘটনা নিচে তুলে ধরা হলো।

খৃষ্টীয় ১৫০৯ সালের এ দিনে ব্রাজিলের ওপর পর্তূগালের দীর্ঘমেয়াদী কর্তৃত্ব শুরু হয়। ১৫০০ সালে একজন পর্তূগীজ ব্রাজিল দেশটি আবিস্কার করেছিল। ব্রাজিল ১৮২২ সালে স্বাধীনতা লাভ করে এবং ফ্রান্স ও হল্যান্ড এর আগে কয়েকবার এই বিশাল দেশটিকে দখলের চেষ্টা করেছিল। কিন্তু উপনিবেশবাদী এই দুই শক্তির প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। পর্তূগীজরা কয়েক শ বছরে ব্রাজিলে আফ্রিকা থেকে ত্রিশ লক্ষেরও বেশী দাস আমদানী করে এবং তাদেরকে আখ চাষে বাধ্য করতো।

দাস ব্যবসা এবং ব্রাজিলের স্থানীয় রেড ইন্ডিয়ানদের ওপর পর্তূগীজদের অত্যাচারের কারণে বেশ কয়েকবার পর্তূগীজ উপনিবেশবাদীদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ সংঘটিত হয়েছিল। কিন্তু পর্তূগীজরা এসব বিদ্রোহ দমন করতে সক্ষম হয়। অবশেষে ১৮২২ সালে ব্রাজিলে স্বাধীনতার সূর্য উদিত হয়। অবশ্য এরপরও অনেক বছর এই দেশটিতে পর্তূগীজদের প্রভাব ও উপস্থিতি বজায় ছিল।

খৃষ্টীয় ১৭০১ সালের এ দিনে পোলান্ড ও সুইডেনের মধ্যে ৬ দিনের যুদ্ধ সংঘটিত হয়। সুইডেনের স¤্রাট দ্বাদশ শার্লের নেতৃত্বে সুইডিশ সেনারা পোলান্ডে হামলা করে। এ হামলার কারণ ছিল ১৬৯৮ সালে রাশিয়া ও ডেনমার্কের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে সুইডেনের বিরুদ্ধে হামলায় পোলান্ডের অংশ গ্রহণের বদলা নেয়া। সুইডিশরা ১৭০৬ সালে এ যুদ্ধে বিজয়ের মধ্য দিয়ে প্রতিশোধ নিতে সক্ষম হয়।

১৬৫ বছর আগে খৃষ্টীয় ১৮৪৪ সালের এ দিনে ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্রের ওপর হাইতির দখলদারিত্বের অবসান ঘটে এবং দেশটি স্বাধীনতা লাভ করে। ক্রিস্টোফার কলম্বাস ১৪৯২ সালে এ দেশটি আবিস্কার করেন এবং তা স্পেন সা¤্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হয়। ১৮০১ সালে হাইতির বিপ্লবী নেতা তুসেন লুথারের নেতৃত্বে দেশটির বিপ্লবী জনতা ডোমিনিকান দখল করে। কিন্তু ১৮৪৪ সালে ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্রে বিদ্রোহ দেখা দেয় এবং হাইতির সেনারা পিছু হটে। ফলে স্বাধীনতা লাভ করে ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯১৬ সালে এ দেশটি দখল করে। ১৯২৪ সালে একটি চুক্তির আওতায় মার্কিন সেনারা পর্যায়ক্রমে ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র ত্যাগ করে। এ দেশটির আয়তন ৫০ হাজার বর্গ কিলোমিটার এবং দেশটির একটি বড় অংশ জুড়ে রয়েছে হিসপানিওয়ালা দ্বীপ।

১৯৩৬ সালের এ দিনে বিখ্যাত রুশ চিকিৎসক ও জীব বিজ্ঞানী আইভান পেট্রোভিচ পাভলভ মারা যান। তিনি প্রাণীকে কোনো বিষয়ে অভ্যস্ত করার পদ্ধতি সম্পর্কে গবেষণা করে ১৯০৪ সালে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

১৯৪২ সালের এ দিনে জাপানী জঙ্গী বিমানগুলো মিত্র বাহিনীর জাহাজগুলোর ওপর বোমা বর্ষণ শুরু করে। প্রশান্ত মহাসাগরের যাভা সাগরে অবস্থানরত মার্কিন, বৃটিশ ও অস্ট্রেলিয়ার বহু জাহাজ এ সময় জাপানী বোমার শিকার হয়ে ডুবে যায়।

১৪৩১ বছর আগে পয়লা রবিউল আউয়ালে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) ও তাঁর অনেক অনুসারী মক্কার মুশরিকদের তীব্র নির্যাতন ও হয়রানির মুখে মদীনায় হিজরত করেন। নবুওত লাভের ১৩ বছর পর এ ঘটনা ঘটে। হিজরতের রাতে মক্কার কুরাইশ মুশরিকরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ)-কে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল। কিন্তু সে রাতে হযরত আলী (আঃ)বিশ্বনবী (সাঃ)’র বিছানায় শুয়ে থেকে ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঘর থেকে আল্লাহর রাসূল (সাঃ)’র বের হওয়া সম্পর্কে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেন। হিজরত ছিল ইসলামের ইতিহাসের যুগান্তরকারী ঘটনা। মদীনাবাসীরা বিশ্বনবী (সাঃ)কে ব্যাপক অভ্যর্থণা দিয়ে বরণ করেছিল। হিজরতের কিছু দিন পরই মদীনায় ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয় এবং সূচিত হয় ইসলামের সোনালী সভ্যতা। হিজরতের সুবাদে মুসলমানরা একটি সুসংগঠিত জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এবং রাসূল (সাঃ)বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে গোত্র ও রাষ্ট্রপ্রধানদের কাছে চিঠি ও দূতের মাধ্যমে ইসলামের দাওয়াত ছড়িয়ে দেয়ার সুযোগ পান।

১৩৬৫ সাল আগে ৬৫ হিজরীর পয়লা রবিউল আউয়ালে হযরত ইমাম হোসাইন (আঃ) ও তাঁর সঙ্গীদের শাহাদতের বদলা নেয়ার জন্য তাওয়াবীন বা অনুতপ্তদের আন্দোলন শুরু হয়। হযরত ইমাম হোসাইন (আঃ) কূফার জনগণের আহ্বানেই তাদেরকে জালেম শাসকদের হাত থেকে রক্ষার লক্ষ্যে গণ-জাগরণে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য কূফার পথে রওনা হয়েছিলেন। কিন্তু পথিমধ্যে কারবালার মরু-প্রান্তরে ইয়াজিদের সেনাদের সাথে এক অসম যুদ্ধে শাহাদত বরণ করেন। কুফার যেসব অধিবাসী হযরত ইমাম হোসাইন (আঃ)-কে দেয়া ওয়াদা ভঙ্গ করে তাঁকে সহায়তার জন্য এগিয়ে আসে নি তারা তাদের এ পাপের জন্য অনুতপ্ত হয়ে তওবা করেছিল বলে তাওয়াবীন নামে অভিহিত হয়। এই গ্রুপটি সোলায়মান বিন সোরাদের নেতৃত্বে শত্রুদের বিশাল বাহিনীর সাথে বীরত্বের সাথে লড়াই করে এবং তাদের অধিকাংশই শহীদ হয়।
মার্কিন কবি হেনরি ওয়ার্ডসওয়ার্থ লংফেলোর জন্ম (১৮০৭)
ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বাসি দখল (১৮৫৪)
ম্যাকডোনাল্ডের নেতৃত্বে ব্রিটিশ লেবার পার্টি প্রতিষ্ঠা (১৯০০)
মহাশূন্যে পারমাণবিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ চুক্তি স্বাক্ষর (১৯৬৭)
বাংলাদেশ আণবিক শক্তি কমিশন স্থাপিত (১৯৭৩)
প্রথম তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে বাংলাদেশের ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত (১৯৯১)
ভারতের গুজরাটে হিন্দু কট্টরপন্থীদের বহনকারী ট্রেনে উগ্ৰবাদীদের অগ্নিসংযোগ। দগ্ধ হয়ে ১৫টি শিশুসহ ৭০ জনের মতো নিহত (২০০২)

নিউজ পেজ২৪/ইএইচএম