ধর্ম

জুন ৪, ২০১৬, ১১:২৭ অপরাহ্ন

যেভাবে ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন মোহাম্মদ আলী

নিউজপেজ২৪ ডেস্ক

ঢাকা: ৭৪ বছরের এক নাতিদীর্ঘ জীবন শেষে পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেন ‘দ্য গ্রেটেস্ট’ খ্যাত জনপ্রিয় মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী। তবে ক্যারিয়ারের শুরুতে কিন্তু তার নাম মোহাম্মদ আলী ছিল না। ১৯৬৪ সালে যখন তিনি প্রথমবারের মতো মুষ্টিযুদ্ধে ওয়ার্ল্ড হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন হন তখন তার নাম ছিল ক্যাসিয়াস মার্সেলাস ক্লে। এর কিছুদিন পরই ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলামে প্রবেশ করেন ক্লে। আর নামটি হয়ে যায় মোহাম্মদ আলী।

ষাটের দশকে যুক্তরাষ্ট্রে আফ্রিকান-আমেরিকান মুসলিমদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে ইসলামি সংগঠন ন্যাশন অব ইসলাম (এনওআই)। এনওআই বিশ্বাস করত, তারা হচ্ছে আফ্রিকার শাহবাজ উপজাতির উত্তরসূরি। ৬৬ ‍ট্রিলিয়ন বছর আগে বিজ্ঞানী শাহবাজের নামে এই উপজাতি সম্প্রদায়টির নামকরণ করা হয়েছিল। ইসলাম গ্রহণের এনওআই’র সদস্য হয়েছিলেন মোহাম্মদ আলী।

১৯৩০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ডেট্রয়েট অঙ্গরাজ্যে এনওআই প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ওয়ালাক ফারাদ মোহাম্মদ। তিনি নিজেকে খ্রিস্টান এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য প্রেরিত পুরুষ বলে মনে করতেন। ১৯৩৪ সালে রহস্যময়ভাবে নিখোঁজ হয়ে যান ফারাদ। পরে তার মতবাদের প্রধান অনুসারি হয়ে ওঠেন ম্যালকলম এবং মোহাম্মদ আলী।

১৯৭৫ সালে এনওআই ত্যাগ করে ইসলামের মূল ধারা সুন্নি ইসলামের অনুসরণ শুরু করেন মোহাম্মদ আলী। এর ৩০ বছর পর ২০০৫ সাল থেকে সুফিবাদের দিকে ঝুঁকে পড়েন তিনি। সুফিবাদ ইসলামের আধ্যাত্মিক একটি ধারা। ইসলাম গবেষকদের মতে, কোরানের ওপর ভিত্তি করেই গড়ে ওঠে আধ্যাত্মিক এই মতবাদটি। সুফিবাদের মূল কথা হচ্ছে: তাওয়াক্কুল (আল্লাহর ওপর নিরঙ্কুশ বিশ্বাস) এবং তাওহিদ (আল্লাহ ছাড়া আর কোনো ইলাহ নেই)। শেষ জীবনে এই সুফিবাদের দীক্ষাই অনুসরণ করেছেন মোহাম্মদ আলী।

১৯৪২ সালের ১৭ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যান্টাকিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মোহাম্মদ আলী। নিজের ক্যারিয়ার বিষয়ে তার লেখা বই ‘দ্য গ্রেটেস্ট: মাই ওউন স্টোরি’ এবং নিজের জীবনী ‘দ্য সোল অব অ্যা বাটারফ্লাই’সহ আরো কিছু বইও লিখেছেন তিনি। তার লেখা প্রায় সবগুলো বই-ই বিশ্বব্যাপী সর্বাধিক বিক্রিত বইয়ের তালিকায় স্থান পেয়েছে।

নিউজপেজ২৪/ এএ