ধর্ম

জুন ৯, ২০১৬, ৮:৩০ অপরাহ্ন

সেহেরিতে রোজাদারের ঘুম ভাঙ্গাচ্ছেন কাফেলার দল

নিউজ পেজ ডেস্ক

রমজান মাসে সেহেরিতে ঘুম ভাঙ্গানোর জন্য বিভিন্ন এলাকায় সুরে সুরে গান করে কাফেলার দল। চলতি বারও এ নিয়মের কোন ব্যতিক্রম নেই। বিভিন্ন এলাকায় ১৫ থেকে ২০ জনের এক একটি দল স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কাজ করছে কাফেলার।

নিজেদের পূর্বপুরুষের ঐতিহ্য ও এলাকাভিত্তিক সংস্কৃতিকে ধারণ ও বহন করে এ কাজে যোগ দিয়েছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমান স্বেচ্ছাসেবকরা।

গজলের এই সুর গভীর রাতের সব নিস্তব্ধতা ভেঙ্গে পৌঁছে যায় মুসলমানের ঘরে ঘরে।

রমজান শুরুর পর থেকেই অলিগলিতে দেখা মিলছে এমন কাফেলার। কেউ সুর মেলাচ্ছেন গজলে, আবার কেউবা গাইছেন গানের প্রথম স্তবক।

পূর্বপুরুষের ঐতিহ্য অনুযায়ী ও সামাজিক রীতিনীতিকে স্মরণ করে প্রতিরাতের নির্দিষ্ট একটি সময়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে মানুষের ঘুম ভাঙাতে দেয়া এই স্বেচ্ছাসেবাকে, তাদের দায়িত্ব মনে করেন তারা। আর তাই এ কাজে প্রায় সবাই যোগ দেন নিজ উদ্যোগে, স্বেচ্ছায়।

১৫ থেকে ২০ জনের এক একটি দল কাজ করছে নির্দিষ্ট এলাকায়। গজলসহ বিভিন্ন ইসলামী গানের মাধ্যমে কোরাসের সুরে প্রায় আধঘণ্টা থেকে পৌনে ১ ঘণ্টা সময় নিয়ে মানুষকে সেহেরীর জন্য জাগিয়ে তুলছেন স্বেচ্ছাসেবকরা।

পুরো রমজান মাস জুড়ে এই কাফেলায় অংশ নেয়ার বিনিময়ে ঈদের আগে হয়তো তাদের জুটবে সামান্য হাদিয়া। তবে শুধু হাদিয়া নয় বরং ধর্মের প্রতি অনুরাগের বশেই এলাকায় এলাকায় এই কাফেলা ঘুরে বেড়ায় সুরে সুরে।

নিউজ পেজ/আরএ.