জাতীয়

মার্চ ৩, ২০১৭, ১:৩৪ পূর্বাহ্ন

বসুন্ধরায় নিরাপত্তারক্ষী-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ, কর্পোরেট অফিস ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকাঃ রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরীহ ছাত্রদের ওপর গ্রুপটির নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীদের অকারণে হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও ভাঙচুর চালিয়েছেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এসময় ছাত্রদের হামলায় বসুন্ধরা গ্রুপের কর্পোরেট কার্যালয় তছনছ হয়ে যায়। ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয় আশপাশের আরো কয়েকটি ভবন ও একটি ক্যাফেতে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কুরিলের বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বিক্ষোভ ও ভাঙচুর চালায় বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্ররা। বেলা আড়াইটার দিকে লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল, কাঁদানে গ্যাস, জলকামান নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বর্তমানে ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুই ঘণ্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে প্রগতি সরণি অবরোধ করে রাখে ওই শিক্ষার্থীরা। এসময় গোটা এলাকার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বুধবার রাতে বসুন্ধরার নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীদের হামলায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শাহরিয়ার হাসনাত তপু আহত হন। এই ঘটনার পর রাতেই একদফা বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। ফের বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। এদিকে ওই আহত ছাত্রকে প্রথমে অ্যাপোলো হাসপাতালে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, বুধবার রাত ১০টার দিকে বসুন্ধরায় অ্যাপোলো গেইটে মোটরসাইকেল রাখাকে কেন্দ্র করে আবাসিক এলাকাটির নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে তপুসহ আরো দুই নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের কথা কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে নিরাপত্তারক্ষীরা তাদের ওপরে হামলা করে বসে। এতে তপু মারাত্মক আহত হন। এরপর রাত থেকেই বিক্ষোভ শুরু করেন নর্থ সাউথের শিক্ষার্থীরা।

এ দিকে এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শুক্রবার হতে যাওয়া এমবিএর সব ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ।
বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা বেলাল আহমেদ জানান, পরিস্থিতি শান্ত করার স্বার্থে শুক্রবারের ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ভাটারা থানার ওসি নূরুল মোত্তাকিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। তদন্তের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজপেজ২৪/ এএ