প্রবাস

এপ্রিল ২৬, ২০১৭, ৪:৫২ অপরাহ্ন

দেশে ফেরার আকুতি ফরিদপুরের সহোদর দবির মোল্লা-কবির মোল্লার

প্রবাস ডেস্ক

রিয়াদঃ চাঁদাবাজ, জুলুমবাজ ও দখলদারদের থেকে প্রবাসীর পরিবারের জীবন ও সম্পদ রক্ষার জন্য সরকারের সাহায্য চেয়ে সৌদি আরবের রিয়াদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ফরিদপুরের আলফা ডাঙ্গা উপজেলার মহিষারঘোপ গ্রামের আলি মোল্লার ছেলে দবির মোল্লা এবং কবির মোল্লা।

তারা বলেন, বিগত ১৭বছর ধরে সৌদি আরবের টেক্সি চালান। সেই সুবাধে তাদের কষ্টার্জিত টাকা দিয়ে নিজ এলাকায় কিছু জমি খরিদ করার পর তা স্থানীয় চাদাবাজদের নজরে আসে এবং দবির মোল্লা এবং তার বড় ভাই কবির মোল্লার কাছে ৩লক্ষ টাকা চাদা দাবি করা হয়। তাদের ৩লাখ টাকা দাবির প্রেক্ষিতে দুই দফায় ১লক্ষ টাকা পরিশোধের পরেই তারা ক্ষান্ত হননি।

চাদার পুরো টাকা পরিশোধ না করার কারণে তাদেরকে নানাভাবে হয়রানীসহ ক্রয়কৃত জমির ফসল কেটে নিয়ে যায় সন্রাসীরা। এছাড়া ২০১৪সালের ২০এপ্রিল আমি, আমার ভাই এবং ভাতিজাসহ মোট ৯জনকে আসামী করে একটি দুটি নয় ৮টি মামলা দায়ের করে যেখানে উল্লেখ করা হয় আমি এবং বাকি ৮জন মিলে তাদের ঘরের স্বর্ণ, পুকুরের মাছ চুরিসহ বাড়ীতে হামলা করি অথচ ঘটনার দেড় মাস আগেই আমি এবং আমার ভাই সৌদি আরব চলে আসি।

সংবাদ সম্মেলনে দবির মোল্লা বলেন, দেশবাসীর কাছে আমার প্রশ্ন আমি এবং আমার ভাই সৌদি আরবে বসে কিভাবে তাদের বাড়ীতে হামলা করলাম? আর এই ধরনের মিথ্যা মামলার কারণে আমরা আজ ৪বছর যাবত দেশে যেতে পারছিনা।

তিনি আরও জানান, আমরা বিষয়টি সুরাহার জন্য পুলিশের মহাপরিদর্শক, স্বরাষ্ট্র সচিব বরাবর আবেদন করেও কোন ফল পাইনি। তিনি বলেন, আমরা প্রবাস থেকে দেশে রেমিটেন্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখছি সেখানে আমাদেরকে নানাভাবে হয়নি করছে এমনকি পরিবারের কাছে পর্যন্ত যেতে দেয়া হচ্ছেনা।

তদন্ত করে বিবাদীদের মিথ্যা মামলা, জমির ফসল কেটে নেয়ার বিচার ও আমার পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তা বিধানের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন দবির মোল্লা।

নিউজপেজ২৪/ এএ