আইন আদালত

মে ১৫, ২০১৭, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন

খালেদার দুর্নীতি মামলার আদালত পরিবর্তনের নির্দেশ

নিউজপেজ ডেস্ক

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ফের আদালত পরিবর্তনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

খালেদা জিয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে রোববার বিচারপতি মো. শওকত হোসেন ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

তবে কোন আদালতে এ মামলার বিচার হবে সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেননি দুপক্ষের আইনজীবীরা।

আদালতে খালেদার পক্ষে শুনানি করেন এজে মোহাম্মদ আলী ও রাগীব রউফ চৌধুরী। তাদের সঙ্গে ছিলেন জাকির হোসেন ভূঁইয়া। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন খুরশীদ আলম খান।

এ মামলাটি বর্তমানে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে খালেদার আত্মপক্ষ সমর্থনের শুনানি পর্যায়ে রয়েছে।

গত ২৬ এপ্রিল খালেদা জিয়া এ মামলায় দ্বিতীয়বারের মতো আদালত পরিবর্তনের আবেদন করেছিলেন।

আদালত সূত্র জানায়, মামলার বিচারক ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কামরুল হোসেন মোল্লা এক সময় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইন শাখার পরিচালক ছিলেন। ওই সময় তিনি এ মামলা নিয়ে কাজ করেছেন।

এতে ন্যায়বিচার পাবেন না দাবি করে মামলাটির পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণে হাইকোর্টে পাঠানোর আবেদন করেছিলেন খালেদা জিয়া। তবে গত ১৩ এপ্রিল আবেদনটি খারিজ করে দেন বিচারক কামরুল হোসেন মোল্লা।

এর আগে গত ৮ মার্চ মামলাটি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৩-এর বিচারক আবু আহম্মেদ জমাদ্দারের প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অনাস্থা আবেদন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট।

তখন মামলাটি ওই আদালত থেকে সিনিয়র বিশেষ জজ-৩ (ঢাকা মহানগর দায়রা জজ) কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে স্থানান্তরের নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে মামলাটি ৬০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তিরও আদেশ দেন হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক।


নিউজপেজ২৪/ এ বি