আন্তর্জাতিক

জুন ৮, ২০১৭, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

কাতার ইস্যুতে মধ্যপ্রাচ্যের সংকট ঘনীভূত হচ্ছে জর্ডানের সম্পর্ক ছেদ

নিউজপেজ ডেস্ক

কাতার ইস্যুতে মধ্যপ্রাচ্যে চলমান সংকট দিন-দিন জটিল আকার ধারণ করছে; বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে সৃষ্টি হচ্ছে নতুন মেরুকরণ। মালদ্বীপ এবং মধ্যপ্রাচ্যের ছয় দেশের পর জর্ডানও গতকাল কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে। তবে কাতারের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে তুরস্ক, ইরাক, ইরান ও রাশিয়া। আর কাতারের অন্যতম বন্ধুপ্রতীম প্রতিবেশী কুয়েত চলমান সংকট নিরসনে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে তাদের ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে।

এদিকে প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোর সম্পর্ক ছিন্ন করার কারণে খাদ্য সংকটে পড়তে পারে কাতার। এমতাবস্থায় কাতারের উদ্বেগ নিরসনে ইরান জানিয়েছে, তারা নৌপথে দেশটিতে খাদ্য সরবরাহ করবে। ইরানের কৃষিপণ্য রপ্তানি ইউনিয়নের সভাপতি রেজা নুরুন্নবী বলেন, আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে কাতারে তাদের খাদ্যসামগ্রী পৌঁছবে।

বিশ্বের ৫৭টি ইসলামি রাষ্ট্র নিয়ে গঠিত সংগঠন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি) কিছু রাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার কথা বলেছে। ওআইসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রগুলোর স্থিরতা ও নিরাপত্তার স্বার্থে সম্পর্ক ছেদের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক ও আইনসঙ্গত। ওআইসির মহাসচিব বলেন, পুরো পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ওআইসির নীতিগত দৃষ্টিভঙ্গি থেকে সব সদস্য-রাষ্ট্রকেই আমাদের প্রয়োজন। এসব সদস্য-রাষ্ট্রের প্রতিবেশীসুলভ হৃদয়, প্রতিটি রাষ্ট্রের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান থাকতে হবে। এদিকে সৌদি আরবের নেতৃত্বে কাতারের সঙ্গে আরবের ছয়টি দেশের সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘটনার নেপথ্য অনুঘটক হিসেবে ‘কৃতিত্ব’ দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, আমার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরের ফল আসতে শুরু করেছে। টুইটারে দেওয়া একাধিক পোস্টে তার এসব ভাষ্য উঠে এসেছে।

টুইটে ট্রাম্প জানান, সৌদি আরবে তার সর্বশেষ সফরের সময় মুসলিম দেশগুলোর নেতারা তাকে জানিয়েছেন, কাতার ‘মৌলবাদী দর্শনে’ অর্থায়ন করছে।

এদিকে উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে স্নায়ুবিক টানাপড়েন প্রশমনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান, কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ও কুয়েতের আমির শেখ জাবের আল আহমাদ আল সাবাহ কথা বলেছেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের সঙ্গে। এদিকে মধ্যপ্রাচ্যে চলমান কূটনৈতিক অস্থিরতা নিরসনে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হবে ইরান, ইরাক ও তুরস্ক। গত সোমবার কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। পরবর্তী সময়ে একই পথ অনুসরণ করে ইয়েমেন, মালদ্বীপ, জর্ডান ও লিবিয়া। ইরান এক্সপেডিয়েন্সি ডিসার্নমেন্ট কাউন্সিলের প্রধান মোহসীন রেজা বলেছেন, বাগদাদে ইরান, ইরাক ও তুরস্ক ওআইসির সদস্য দেশগুলোকে আহ্বান জানাবে কাতার ইস্যুতে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের। তবে বৈঠকের দিনক্ষণ গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নির্দিষ্ট করা হয়নি।

সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রতিক্রিয়ায় কাতার এয়ারলাইনস জানিয়ে দিয়েছে, সংস্থাটি আর সেসব দেশে ফ্লাইট পরিচালনা করবে না। অন্যদিকে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসরে কাতারের টিভি-চ্যানেল আলজাজিরার সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।


নিউজপেজ২৪/ এ বি