প্রবাস

নভেম্বর ১৫, ২০১৭, ৪:১২ পূর্বাহ্ন

সৌদি আরবে বাংলাদেশের খাদ্য ও পানীয়ের বাজার বৃদ্ধি পাচ্ছে-রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সৌদি আরবের বাণিজ্য নগরী জেদ্দায় শুরু হয়েছে খাদ্য ও পানীয় বিষয়ক চার দিনব্যাপি
আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা Foodex Saudi -2017. রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো বাংলাদেশের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ দূতাবাস
ও জেদ্দা কনস্যুলেটের সহায়তায় এই প্রথম বাংলাদেশের শীর্ষ স্থানীয় দশটি কোম্পানি মেলায় অংশগ্রহন করে।
সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ গতকাল সোমবার মেলায় অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশের স্টল সমূহ পরিদর্শন করেন।
এ সময় রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের তৈরি খাদ্যদ্রব্য ও পানীয় উন্নতমানের ও সুস্বাদু বলেই সৌদি
আরবে দিন দিন এর চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মেলায় অংশগ্রহনের মাধ্যমে সৌদি আরবে বাংলাদেশী পন্যের বাজার বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।
রাষ্ট্রদূত আশা প্রকাশ করেন সৌদি আরবে অচিরেই বাংলাদেশের খাদ্যদ্রব্য ও পানীয়ের রফতানি অনেক বৃদ্ধি পাবে।
তিনি মেলার মাধ্যমে সৌদি আরবসহ জিসিসিভুক্ত ছয়টি দেশে ও আফ্রিকা সহ অন্যান্য দেশের ক্রেতাদের কাছে বাংলাদেশী পন্যের পরিচয় ও বাজারজাত করার সুযোগ তৈরি হয়েছে বলে জানান।
গোলাম মসীহ বলেন সৌদি আরবে বাংলাদেশের শ্রম বাজারের পাশাপাশি বাংলাদেশী পন্যের রফতানি বৃদ্ধি করার জন্যই এই মেলায় দশটি কোম্পানি অংশগ্রহণ করেছে। বাংলাদেশের পণ্যকে আন্তর্জাতিক বাজারে তুলে ধরার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।
খাদ্য ও পানীয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, চামড়াজাত দ্রব্য,ঔষধ, প্রক্রিয়াজাত খাবারের ও চাহিদা রয়েছে বলে তিনি জানান।
তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরের পর থেকে সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বর্তমানে নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে বলে জানান।
অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব কাজী সফিকুল আজম এসময় উপস্থিত ছিলেন। তিনি মেলায় অংশগ্রহণ সম্পর্কে বলেন, বিশ্ব দরবারে দিন দিন বাংলাদেশী তৈরি পন্যের চাহিদা তৈরি হচ্ছে। মেলার মাধ্যমে বিদেশের ক্রেতারা বাংলাদেশী পণ্য সম্পর্কে জানার সুযোগ পাচ্ছে যা রফতানি বৃদ্ধিতে অবদান রাখবে।
বাংলাদেশ দূতাবাসের ইকোনমিক কাউন্সেলর ডঃ মোঃ আবুল হাসান মেলার মাধ্যমে নতুন ক্রেতা তৈরি হওয়ার পাশাপাশি বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বৃদ্ধিতে ও ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন।
জেদ্দা চেম্বার অব কমার্সের পর্যটন ও বিনোদন বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান প্রিন্স আব্দুল্লাহ বিন সৌদ গত ১২নভেম্বর মেলা উদ্বোধন করেন। মেলায় বাংলাদেশের স্টলগুলোতে বিদেশী ক্রেতাদের ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
মেলায় অংশগ্রহনকারি বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানগুলো হল প্রান, ইফাদ, ডেনিশ, কিষোয়ান, রোমানিয়া, সজিব, হাশেম ফুডস, এলসন ফুডস, এ সি আই, ও প্রাইম পুষ্টি লিমিটেড। রাষ্ট্রদূত মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান সমূহকে ক্রেস্ট প্রদান করেন।
বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর একটি স্টল মেলায় আগত বিভিন্ন ক্রেতাদের বাংলাদেশী পণ্য সম্পর্কে তথ্য প্রদান করছেন। এছাড়া বিভিন্ন ক্রেতাদের সাথে বাংলাদেশী কোম্পানিগুলোর পরিচয় ও বৈঠকের বাবস্থা করে দিচ্ছেন। রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসাইন ও সহকারী পরিচালক রহিমা আক্তার মেলায় উপস্থিত ছিলেন।
মেলায় ভারত, পাকিস্তান, তুর্কি, স্পেন, আমেরিকা, ইউরোপ সহ বিভিন্ন দেশের শতাধিক কোম্পানি অংশগ্রহণ করেছে।
মেলা চলবে আগামি ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত।


নিউজপেজ২৪/এন এ

আরো খবর